SHARE

মধুর ঘনত্ব কম বা বেশি হওয়া নিয়ে আমাদের মনে নানান রকমের প্রশ্ন জাগে। আসুন জেনে নেওয়া যাক মধু ঘন বা পাতলা হওয়ার কারন: 

মধু পাতলা হয় কেনো?
মধুর তরলতা নির্ভর করে নেকটার সংগ্রহের উৎসের উপর। ফুল ভেদে নেকটারের ঘনত্ব বিভিন্ন রকমের হয়, কোনটা পাতলা আবার কোনটা ঘন। এর পেছনে অনুঘটক হিসাবে কাজ করে ঐ অঞ্চলের আবহাওয়া, আদ্রতা, বৃষ্টিপাত এবং মাটির আদ্রতার পরিমাণ। উদাহরণ হিসাবে বলা যেতে পারে মরু অঞ্চলের ফুলের নেকটার থেকে উৎপন্ন মধু অপেক্ষাকৃত ঘন হয় কারণ সেখানকার আবহাওয়া এবং মাটিতে ময়েশ্চার অনেক কম, পক্ষান্তরে যে অঞ্চলে বৃষ্টিপাতের পরিমাণ, বাতাসে এবং মাটিতে ময়েশ্চার বেশি, সেই অঞ্চলের মধু পাতলা হয়। যেমন চায়না, তাইওয়ান,সুন্দরবনের মধু উপরোক্ত কারণে পাতলা হয়। অনেকে ভুল ধারণা বশত মধুর ঘনত্ব দিয়ে মধুর আসল নকল যাচাইয়ের চেষ্টা করে, যেটা বিজ্ঞানসম্মত তো নয়ই বরং কুসংস্কার ই বলা যেতে পারে।

মধু পাতলা হওয়ার দ্বিতীয় কারণ হচ্ছে ফুল থেকে মৌমাছি নেকটার সংগ্রহ করে মধু তৈরি করে চাঁকে রাখার পর তাতে জলীয় অংশের পরিমাণ অনেক বেশি থাকে, শ্রমিক মৌমাছিরা পাখা দিয়ে বাতাস করে পানির বাষ্পীভবনের মাধ্যমে এই জলীয় অংশের পরিমাণ কমিয়ে উপযুক্ত পর্যায় নিয়ে আসে এবং মোম দিয়ে ঢাকনা তৈরি করে ষড়ভুজাকৃতি ঘর গুলোকে ঢেকে দেয়। মৌচাষ বিদ্যার পরিভাষায় একে ‘ক্যাপিং’ বলা হয়। এই ক্যাপিং হওয়ার আগে মধু সংগ্রহ করলেও মধু পাতলা থেকে যায়। একই চাঁকের ক্যাপিং অংশের মধুর ঘনত্ব আনক্যাপিং অংশের তুলনায় বেশি হতে পারে।

সুন্দরনের মধু এত পাতলা হয় কেনো?
সুন্দরবন সমূদ্র তীরবর্তী হওয়ায় এবং ভেতরে ছোটবড় অনেক খাল থাকায় এখানকার পরিবেশে আদ্রতার পরিমান অনেক বেশি হওয়ায় মধুর উপর সরাসরি প্রভাব পড়ে বিধায় সুন্দরবনের মধু অনেক পাতলা হয়। মানিকগঞ্জ, ফরিদপুর, মাদারীপুর, শরীয়তপুর, নাটোর, পাবনা সহ বিভিন্ন অঞ্চলের চাষকৃত সরিষা, কালিজিরা, ধনিয়া, লিচুর মধুর গড় ময়েশ্চার যেখানে ১৮-২২%, সেখানে সুন্দরবনের মধুতে ময়েশ্চারের পরিমাণ প্রায় ২৬-২৭%। এবং ময়েশ্চারের এই আধিক্যতাই সুন্দরবনের মধু পাতলা হওয়ার মূল কারণ এবং প্রধান বৈশিষ্ট্য। সুতরাং মধু পাতলা দেখে কিংবা মিষ্টতার আধিক্যের কারণে বিভ্রান্ত হওয়ার কোন কারণ নেই। সিজনের প্রথম যে মধুটা আহরিত হয় সেটার মিষ্টতা স্বাভাবিক ভাবেই বেশি থাকে।

মধু ঘন হয় কেনো?
আমাদের দেশের সুপারশপ গুলোতে নামিদামি বিদেশি ব্রান্ডের যে মধুগুলো পাওয়া যায়, সেগুলো উচ্চ তাপীয় প্রক্রিয়ার মাধ্যমে জলীয় অংশ কমিয়ে আনা হয় বিধায় এই মধুগুলো অনেক ঘন দেখায়, কিন্তু উচ্চ মাত্রায় তাপ প্রয়োগের ফলে মধুর অনেক প্রাকৃতিক গুণাবলী নষ্ট হয়ে যায়। এমনকি অনেক মধু বিশেষজ্ঞ একে মধু বলে স্বীকার ই করতে নারাজ।

 

সুন্দরবনের খলিশা ফুলের মধু ”পদ্ম মধু” হোম ডেলিভারী পেতে অর্ডার করুন: SatkhiraShop.com

 

 

 

NO COMMENTS